১৯ শে মে পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে ২৬ শে এপ্রিলের প্রস্তাবিত বনধকে সমর্থন করে সহযোগিতার অঙ্গীকার করল বরাকের বিভিন্ন সংগঠন

১৯ শে মে পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে ২৬ শে এপ্রিলের প্রস্তাবিত বনধকে সমর্থন করে সহযোগিতার অঙ্গীকার করল বরাকের বিভিন্ন সংগঠন

শিলচর: সেবা ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা পর্ষদের ১৯ শে মে এডভান্স মনিপুরী ও বাংলা পরীক্ষার কার্যসূচি বাতিলের দাবিতে আগামী ২৬ শে এপ্রিল বরাক ব্যাপী বনধ পালন করার ঘোষণা করেছিলেন উপত্যাকার সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের নিয়ে গঠিত আহ্বায়ক কমিটি। আজ শিলচরের রূপম সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার সভাগৃহে আয়োজিত এক সভায় এই বনধ কর্মসূচিকে পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দিলেন এই উপত্যকার আরো বহু সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

এদিনের সভায় মূলতঃ আগামী ২৬ শে এপ্রিল বনধ নিয়ে আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে বক্তারা বিভিন্ন মতামত তুলে ধরেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে এই বনধ কর্মসূচি ঘোষিত হবার পরই শিলচরের সাংসদ রাজদীপ রায় জানান যে এই দিনের পরীক্ষা কার্যসূচি যে পরিবর্তিত হবে তিনি শিক্ষা মন্ত্রীর কাছ থেকে সেই আশ্বাস পেয়েছেন। তাই আপাতত আন্দোলনের দরকার নেই। তার এই বক্তব্যের সমালোচনা করে এদিন বক্তারা বলেন যে গত দুমাস ধরে এই নিয়ে প্রথমে বরাক উপত্যকা বঙ্গ সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্মেলন ও পরে আরো বিভিন্ন সংগঠন শিক্ষা পর্ষদকে স্মারকলিপি দিয়েছেন। বরাক বঙ্গের প্রতিনিধিদল শিক্ষা আধিকারিকের সাথে দেখা করে অভিযোগ জানিয়েছেন । এতদিন কেনো এই ব্যাপারে কোনো বক্তব্য শোনা গেল না সাংসদের মুখে ? যখন প্রস্তাবিত বনধ নিয়ে চাপ সৃষ্টি হয়েছে তখন বাধ্য হয়ে এসব ভাসা ভাসা কথাবার্তা বলা হচ্ছে। উপত্যকার অন্য বিধায়ক কমলাক্ষ দে পুরকায়স্থ এই ব্যাপারে শিক্ষা আধিকারিকের সাথে দেখা করেছেন। তার এই উদ্যোগকে এদিন সাধুবাদ জানিয়ে অধিকাংশ বক্তাই বলেন যে এসব মৌখিক প্রতিশ্রুতিকে বিশ্বাস করা মোটেই উচিত নয় এবং তাই উভয় শিক্ষা পর্ষদ থেকে ১৯ শে মে পরীক্ষা কার্যসূচি বাতিলের লিখিত সার্কুলার না পাওয়া অব্দি ঘোষিত আন্দোলন কর্মসূচিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে কাজ চলবে।

যেসব সংগঠনএদিন এই বনধের প্রতি পূর্ণ সমর্থন ও সহযোগিতার অঙ্গীকার করেন তাঁরা হলেন ‘বরাক উপত্যকা বঙ্গ সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্মেলন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক মঞ্চ শিলচর,আসাম উচ্চতর মাধ্যমিক শিক্ষক ও কর্মচারী সংস্থা, মাতৃভাষা ঐক্যমঞ্চ,উধারবন্দ, ঝিনুক সাংস্কৃতিক সংস্থা, বদরপুর, নিখিল ভারত বিষ্ণুপ্রিয়া মনিপুরী সাহিত্য সম্মেলন,অল ইন্ডিয়া সেক্যুলার ফ্রন্ট,বরাক ভেলি বাস ওনার্স এসোসিয়েশন, চেম্বার অব কমার্স, কাছাড় মার্চেন্ট এসোসিয়েশন,ফুড গ্রেইন মার্চেন্ট এসোসিয়েশন, সেন্ট্রাল শিলচর ট্রেডার্স এসোসিয়েশন,নিউ মার্কেট মার্চেন্ট এসোসিয়েশন,ফাটকবাজার মার্চেন্ট এসোসিয়েশন,রূপম,সমকাল, দশরূপক, গণসুর,পূবালী,চেতনা,ভাবীকাল, ভাষাশহীদ স্টেশন স্মরণ সমিতি শিলচর প্রমুখ। এছাড়া বরাকের আরো বহু বিশিষ্ট ব্যক্তি জনেরা টেলিফোন মারফত বনধ এর প্রতি তাদের সমর্থন জানিয়েছেন। এছাড়া অবিলম্বে করিমগঞ্জ ,হাইলাকান্দি,পাথারকান্দি ও লক্ষীপুরেও এই বনধের সমর্থনে সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন রূপম সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার সম্পাদক নিখিল পাল।

এদিনের সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এম এম হানিফ লস্কর মহাশয়কে নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এছাড়া আগামী ২২ এপ্রিল সন্ধ্যা ছয়টায় রূপম সামাজিক , সাংস্কৃতিকও ক্রীড়া সংস্থার সভাগৃহে আবার একটি পর্যালোচনা সভার আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই সভায় সংশ্লিষ্ট সকলকে উপস্থিত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন বিডিএফ এর মূখ্য আহ্বায়ক প্রদীপ দত্তরায়।